Home » ফিচার » আপনি জানেন কি বজ্রপাত কেনো হয়?
আপনি জানেন কি বজ্রপাত কেনো হয়
আপনি জানেন কি বজ্রপাত কেনো হয়

আপনি জানেন কি বজ্রপাত কেনো হয়?

বজ্রপাতে মৃত্যুর খবর তো প্রায়ই শোনা যায়। কিন্তু কখনো কি ভেবেছেন বজ্রপাত কেনো হয় বা কিভাবে হয়। মেঘ সৃষ্টির পরেই যে বজ্রপাতের সৃষ্টি হয় এ ব্যাপারে আমরা সকলেই অবগত। এছাড়া পানি চক্রের নিয়মে জলাধারের পানি বাষ্পীভূত হয়ে মেঘ হয় এটাও আমরা জানি। এই মেঘ-ই হলো বজ্রপাতের ব্যাটারি। মেঘ বৈদ্যুতিক চার্জের আধারের মত আচরণ করে, যার উপরের অংশে পজিটিভ এবং নিচের অংশে নেগেটিভ চার্জ বিদ্যমান থকে।

তবে মেঘের চার্জিত হওয়ার ঘটনা নিয়ে বেশ মতভেদ থাকলেও প্রতিষ্ঠিত মতবাদ হলো পানিচক্রে জলকণা বাষ্প হয়ে উপরে উঠতে থাকে। এরপর ধীরে ধীরে ছোট ছোট পানি কণা থেকে এক পর্যায়ে ঘনীভূত মেঘের সৃষ্টি হয়। মেঘ যত উপরে উঠতে থাকে তত তুষার কণার সাথে সংঘর্ষ হতে থাকে। ফলে কিছু বাষ্প কণা ইলেকট্রন হারায়। এই মুক্ত ইলেকট্রনগুলো মেঘের তলদেশে জমা হয় এবং ইলেকট্রন হারানো পজিটিভ চার্জিত বাষ্পকণা মেঘের একেবারে উপরপৃষ্ঠে চলে যায়। ফলে মেঘ শক্তিশালী ধারক বা ক্যাপাসিটর এর বৈশিষ্ট্য লাভ করে। মেঘের দুই স্তরে চার্জ তারতম্যের কারনে সেখানে শক্তিশালী বৈদ্যুতিক ক্ষেত্র তৈরি হয়। এই বিদ্যুৎ ক্ষেত্রের শক্তি মেঘে সঞ্চিত চার্জের উপর নির্ভর করে। এভাবে বাষ্পকণা ও মেঘে সংঘর্ষ চলতে চলতে মেঘের উপরে এবং নিচে যথাক্রমে নেগেটিভ এবং পজেটিভ চার্জের পরিমাণ বেড়ে গিয়ে এতটা শক্তিশালী বৈদ্যুতিক ক্ষেত্র তৈরী করে যে তার বিকর্ষণে পৃথিবীপৃষ্ঠে অবস্থানরত ইলেকট্রনগুলো আরও গভীরে চলে যায়। ফলে ওই নির্দিষ্ট এলাকার ভূপৃষ্ঠ শক্তিশালী পজিটিভ বিদ্যুৎ ক্ষেত্রে পরিণত হয়।

কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে বাতাস তো বিদ্যুৎ অপরিবাহী তাহলে বজ্রপাত কেনো হবে? হ্যাঁ, বাতাস বিদ্যুৎ অপরিবাহী। কিন্তু মেঘের শক্তিশালী বিদ্যুৎক্ষেত্র তার চারপাশের বাতাসের অপরিবাহী ধর্মকে নষ্ট করে দেয়, ফলে মেঘে অবস্থিত বিদ্যুৎক্ষেত্র আরও শক্তিশালী হয়ে ওঠে এবং চারপাশের বাতাস পজিটিভ এবং নেগেটিভ চার্জে বিভক্ত হয়ে যায়। এই আয়োনিত বাতাস প্লাজমা নামেও পরিচিত। বাতাস আয়োনিত হয়ে মেঘ এবং বিদ্যুৎ চলাচলের পথ বা শর্ট-সার্কিট তৈরী করে দেয় এবং বজ্রপাত ঘটায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: