Home » খেলাধুলা » ওয়েম্বলি স্টেডিয়াম কিনতে চাওয়া, কে এই শাহিদ খান?
ওয়েম্বলি স্টেডিয়াম কিনতে চাওয়া, কে এই শাহিদ খান
ওয়েম্বলি স্টেডিয়াম কিনতে চাওয়া, কে এই শাহিদ খান

ওয়েম্বলি স্টেডিয়াম কিনতে চাওয়া, কে এই শাহিদ খান?

পৃথিবীর বিখ্যাত ফুটবল স্টেডিয়াম লন্ডনের ওয়েম্বলি। এবার এই স্টেডিয়ামকেই কিনে নেবার প্রস্তাব দিলেন পাকিস্তানি- আমেরিকান ব্যবসায়ী শহিদ খান। ৯০ কোটি পাউন্ডের বিনিময়ে এটি কিনে নেবার প্রস্তাব দেওয়ায় হঠাৎ করেই আলোচনায় উঠে আসলেন এই ব্যক্তি। তবে এই প্রস্তাব এখনো গ্রহণ করেননি ইংলিশ ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা এফএ। এছাড়া এ নিয়ে কোনো চুক্তিও হয়নি।

তবে শাহিদ খান বলছেন, ‘আগামী আট সপ্তাহের মধ্যেই এ চুক্তি করা সম্ভব এবং তাহলে এখানে ফুটবল ছাড়াও আমেরিকান ফুটবল খেলা হতে পারবে। ওয়েম্বলিতে ২০০৭ সাল থেকেই এনএফএলের কিছু খেলা হচ্ছে।’

কিন্তু প্রশ্ন একটাই কে এই শাহিদ খান? তিনি আর কেউ নয়। বিশ্বের সেরা ধনীদের মধ্যে ২১৭ তম ব্যক্তি। যার মোট সম্পত্তির পরিমাণ ৭২০ কোটি ডলার। তার জন্ম পাকিস্তানের লাহোরে। ১৯৬৮ সালে তিনি ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ার জন্য আমেরিকা যান। কিন্তু সেখানে গিয়ে তিনি প্রথম দিকে তিনি প্লেট ধোয়ার কাজ করতেন। এতে তার প্রতিদিন আয় হতো ১ ডলার ২০ সেন্ট। তা দিয়েই তার লেখাপড়ার খরচ চালাতেন। এরপর তিনি একটি গাড়ি ব্যবসায় জড়িয়ে পড়েন এবং ১৯৭৮ সালে একটি বাম্পার তৈরির কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করেন।

সেখান থেকেই তার সাফল্যের শুরু হয়। ২০১২ সালের হিসেব অনুযায়ী বলা যায়, যুক্তরাষ্ট্রে দু-তৃতীয়াংশ গাড়ির বাম্পারই এখন তৈরি হয় শাহিদ খানের কারখানায়। এরপর ২০১২ সালেই আমেরিকান ফুটবল দল জ্যাকসনভিল জাগুয়ার্সের মালিক হন।

জাতিগত ভাবে তিনিই প্রথম যে সংখ্যালঘু আমেরিকান হিসেবে একটি ফুটবল ক্লাবের মালিক হন। যা তিনি কিনেছিলেন ৭৬ কোটি ডলারে। পরের বছর তিনি ইংলিশ ফুটবল ক্লাব ফুলহ্যাম কিনে নেন মিশরীয় ধনী মোহাম্মদ আল-ফায়েদের কাছ থেকে।

তবে এত টাকার মালিক হলেও তিনি আমেরিকায় বৈষম্যের হাত থেকে রেহাই পাননি। ১১ই সেপ্টেম্বরের সন্ত্রাসী হামলার পর শাহিদ খানকে ব্যবসায়িক সফরের সময় বহুবার পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থামিয়েছে। একবার কানাডা যাবার সময় তাকে ৬ ঘণ্টার জন্য জেলেও কাটাতে হয়েছিল।

৬৮ বছর বয়স্ক পাকা গোঁফধারী শাহিদ খান এখনও হয়ে যেতে পারেন ফুটবলের অন্যতম নামী স্টেডিয়াম ওয়েম্বলির মালিক। ইংলিশ ফুটবলের ঐতিহ্যগত ‘হোম’ হচ্ছে এই ওয়েম্বলি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: