Home » স্বাস্থ্য » গরমে ত্বকের যত্নের বিশেষ ফর্মুলা
গরমে ত্বকের যত্নের ফর্মুলা
গরমে ত্বকের যত্নের ফর্মুলা

গরমে ত্বকের যত্নের বিশেষ ফর্মুলা

শীতের ঝরা পাতার ফাঁক দিয়ে উঁকি দিয়েছে বসন্ত। বাতাসে উষ্ণতা বাড়ার সাথে সাথে ত্বকে এর প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। সূর্যের তাপ এবং ধুলাবালুর কারণে সময়ে ত্বকের জন্য প্রয়োজন বাড়তি যত্নের। সময়ে কিভাবে ত্বকের যত্ন নেবেন জেনে নিন সেই বিষয়ে

১.পানি পান করুন

পানি শুধু শরীরে আর্দ্রতা জোগায় না, ত্বককে করে তোলে সজীব। তাই ত্বক সুন্দর রাখতে সময়ে প্রচুর পানি পান করুন।

২.টোনার ব্যবহার করুন

টোনার ত্বকের রোমকূপ বন্ধ ত্বককে শীতল রাখতে সাহায্য করে। বাজার থেকে ভালো কোম্পানির টোনার দেখে কিনুন। ঘরোয়া টোনার হিসেবে গোলাপজল ভালো কাজ করে।

৩.ওয়াটার বেজ ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন

গরমের সময়ও ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার বন্ধ করবেন না। কারণ ময়েশ্চারাইজার ত্বকে আর্দ্রতা জোগানোর পাশাপাশি ত্বককে নরম রাখে। তবে গরমের সময় ওয়াটার বেজ ময়েশ্চারাইজার বেছে নিন ত্বকের যত্নে

৪.ত্বক পরিষ্কার রাখুন

সকালে রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে অবশ্যই ত্বক পরিষ্কার করুন। যদি এমন হয় সারা দিন বাইরে বের হননি তবুও রুটিন করে ত্বক পরিষ্কার করতে ভুলবেন না।

৫.এক্সফোলিয়েট করুন

গরমের সময় ত্বকের মরা কোষ দূর করে রক্ত সঞ্চালন বাড়ানোর জন্য ত্বককে এক্সফোলিয়েট করা জরুরি। কারণ সময় ধুলাময়লা জমে ত্বক অপরিচ্ছন্ন হয় বেশি। চারপাঁচ চামচ বেসনের সাথে এক চামচ হলুদ, পাঁচছয় ফোঁটা গোলাপজল দুধ মিশিয়ে পেস্টের মতো তৈরি করে ত্বকে লাগিয়ে রাখুন। আধঘণ্টা পর ঘষে ঘষে তুলে ফেলুন।

৬.রোদ এড়িয়ে চলুন

বেসন ত্বকের রোদে পোড়া ভাব দূর করতে খুব কার্যকর। বেসনের সাথে টক দই কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলতে হবে। রোদে পোড়া দাগ দূর করতে লেবুর রস ভালো কাজ করে। পেঁপে প্রাকৃতিক কিনজার হিসেবে ভালো কাজ করে। তাই ত্বক পরিষ্কার করতে দুই টেবিল চামচ চটকানো পেঁপের সাথে এক চা চামচ মধু একটা ডিমের সাদা অংশ মিশিয়ে ফেসপ্যাক হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।

৭.ত্বককে শীতল রাখুন

গরমে ত্বক শীতল রাখা খুব প্রয়োজন। এক টেবিল চামচ কোরানো শসার সাথে এক টেবিল চামচ টক দই মিশিয়ে ত্বকে লাগিয়ে রাখুন। ১৫২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। খুবই সতেজ অনুভব করবেন। ছাড়া পুষ্টিকর খাবার, ব্যায়াম পর্যাপ্ত ঘুম ত্বক ভালো রাখার জন্য খুবই জরুরি। লেখাটি ভালো লাগলে শেয়ার করতে ভুলবেন না

এসবের পাশাপাশি আরও কিছু দিক খেয়াল রাখা জরুরি:

_গরমে যাদের ঘামাচি হয়, নিমপাতার রস ব্যবহারে তারা উপকার পাবেন। ঘাম বেশি হলে ট্যালকম পাউডারের সঙ্গে এক চিমটি খাবার সোডা ব্যবহার করুন।

_গ্রীষ্মে ত্বক তৈলাক্ত হয়ে পড়ে। শসা বাটা মসুর ডাল বাটা পেস্ট করে মুখে মেখে ১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। মুখের তৈলাক্ত ভাব কেটে যাবে।

_রোদেপোড়া ভাব দূর করে ত্বকের উজ্জ্বলতা মোলায়েম ভাব আনতে লাউয়ের রস, তরমুজের রস বরফ করে মুখে ঘষুন।

_গরমে অনেকের ত্বকে হিট র্যাশ দেখা দেয়। এটি এড়াতে দইয়ের সঙ্গে হলুদ বা নিমপাতা বাটা মিশিয়ে ত্বকে মাখুন। খানিকটা লাউ থেঁতো করে সঙ্গে তুলসীপাতা চালের গুঁড়া মিশিয়ে ব্যবহার করলে র্যাশ হবে না। বাড়বে ত্বকের উজ্জ্বলতাও

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: