Home » খেলাধুলা » ক্রিকেট » টাইগারদের পাহাড় সমান রান চেজ করতে দেখে হতবাক ভারত!
ফাইনালের লক্ষে ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ!
ফাইনালের লক্ষে ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ!

টাইগারদের পাহাড় সমান রান চেজ করতে দেখে হতবাক ভারত!

টি-টুয়েন্টিতে বাংলাদেশ একের পর এক ম্যাচ হারের পর,যখন বিশ্বের সকলেই বলতে শুরু করে দিয়েছে যে বাংলাদেশ টি-টুয়েন্টি খেলার যোগ্য নয়, ঠিক তখনই নিদাহাস ট্রফিতে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে স্বাগতিক শ্রীলংকার দেওয়া ২১৪ রানের পাহাড় সমান টার্গেটকে মাত্র পাঁচ উইকেট হারিয়ে এবং ৪ বল হাতে রেখে জয়ী হয়ে সে কথার উপযুক্ত জবাব দিয়ে দিল টাইগাররা।

অথচ নাদহাস কাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে বাংলাদেশের ব্যাটিং ছিল এলোমেলো অসময়ে উইকেট হারিয়ে সেদিন মোট সংগ্রহটা ১৩৯ রানের বেশি হয়নি ম্যাচটা জিততে ভারতকে যে খুব কষ্ট করতে হয়েছে, সেটি হয়তো বলা যাবে না, কিন্তু ম্যাচটা শেষ করতে তাদের ১৮. ওভার লেগেছে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২১৪ তাড়া করে ম্যাচ জিতে তাই আফসোস হতেই পারে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদেরসংগ্রহটা যদি আর ৩০৪০ রান বেশি হতো!

নিদাহাস ট্রফি এখন উন্মুক্ত প্রতিযোগিতায় রূপ নিয়েছে। তিনটি দলেরই জয় একটি করে। স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা অবশ্য রানরেটে ভারত বাংলাদেশের চেয়ে এগিয়ে। ভারত আছে দ্বিতীয় স্থানে। বাংলাদেশ তিনে। আজ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ফিরতি ম্যাচে মাঠে নামার আগে তাই জয়ের বিকল্প কিছু দেখছে না রোহিত শর্মার দল। আজ জিতলে ফাইনালের পথে অনেকটাই এগিয়ে যাবে শ্রীলঙ্কা। ভারত সেটি হতে দেবে কেন!

লঙ্কানদের সঙ্গে ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে এসে জয়ের প্রত্যয়ই ঝরেছে ভারতীয় পেসার জয়দেব উনাদকাটের কণ্ঠে। সেই সঙ্গে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশের রেকর্ড রান তাড়া করতে দেখে সেটা নিয়েও নিজের মুগ্ধতার কথা শুনিয়েছেন এই বাঁহাতি পেসারশুধু উনাদকাটই নয় পুরো ভারত এবং শ্রীলংকার সমর্থকেরাও বাংলাদেশের এরকম চেজ করা দেখে হতবাক।

অপরদিকে ভারতের পেসার উনাদকাট মনে করেন শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশ একপ্রকার অসম্ভবই সম্ভব করেছে, ‘দুর্দান্ত রান তাড়া করাই দেখলাম আমরা। এই সংস্করণে যেকোনো দলের বিপক্ষেই ২১৪ রান তাড়া করাটা দারুণ ব্যাপার। চাপের মুখে দাঁড়িয়ে বাংলাদেশ সত্যিই দুর্দান্ত খেলেছে।

কীভাবে বাংলাদেশ ২১৪ তাড়া করেছে, সেটার একটা ব্যাখ্যাও দিয়েছেন উনাদকাট, ‘আমি মনে করি, তারা তাদের পরিকল্পনার বাস্তবায়নটা দুর্দান্তই করেছে। শ্রীলঙ্কার বোলাররা কীভাবে বল করে, কী কী করতে পারে, সেটা তারা মাথায় রেখেছে। সে কারণেই এটি সম্ভব হয়েছে

তিন দলের জয়ে প্রতিযোগিতাটা এখন অনেক উন্মুক্ত। এটা বেশ লাগছে এই ভারতীয় পেসারের, ‘প্রতিযোগিতাটা এখন অনেক বেশি উন্মুক্ত। সে কারণে খেলোয়াড়েরাও অনেক বেশি উদ্দীপ্ত।আর সেই উদ্দীপনা নিয়েই আজ স্বাগতিক শ্রীলংকার সাথে এগিয়ে যাওয়ার লড়াইয়ে মাঠে নামবে ভারত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: