Home » বিনোদন » টিভি » ধর্ষণ প্রসঙ্গে কথা বলায় বিতর্কিত পূর্ণিমা!!
ধর্ষণ প্রসঙ্গে কথা বলায় বিতর্কিত পূর্ণিমা!!
ধর্ষণ প্রসঙ্গে কথা বলায় বিতর্কিত পূর্ণিমা!!

ধর্ষণ প্রসঙ্গে কথা বলায় বিতর্কিত পূর্ণিমা!!

ঢালিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী পূর্ণিমা। বহু নাটক এবং চলচ্চিত্র করে দর্শকদের মন জুগিয়েছেন এই অভিনেত্রী। শুধু তাই নয় অভিনয়ের পাশাপাশি তার সাবলীল উপস্থাপনার মাধ্যমেও বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন এই অভিনেত্রী। সম্প্রতি তার এই অনুষ্ঠানে অথিতি হিসেবে ডাকা হয় ঢালিউডের বিখ্যাত খলননায়ক মিশা-সওদারকে। আর এই পর্বে পূর্নিমা চলচ্চিত্র বিষয়ে বিভিন্ন ধরনের প্রশ্ন করেন মিশাকে। তাদের এই আলাপের মাঝে হঠাৎ করে ‘ধর্ষণ’ প্রসঙ্গ নিয়ে কথা উঠলে পূর্ণিমা মিশাকে প্রশ্ন করেন ‘আপনি সিনেমাতে কতবার ধর্ষণ করেছেন? কার সঙ্গে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করতেন ধর্ষণের সিন করতে?’ আর এর পরেই বিতর্ক শুরু হয়ে যায়।

গত কয়েকদিন ধরেই এ বিষয়ে কোনো বক্তক্য শোনা যায়নি। তবে সম্প্রতি এই বিষয়ে খুবই দুঃখ প্রকাশ করেছেন। অনুষ্ঠান দেখে যারা তার উপর ক্ষুব্ধ হয়েছেন বা কষ্ট পেয়েছেন তাদের প্রতি তিনি দুঃখ প্রকাশ করেছেন। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘সত্যি কথাটা হলো আমরা আসলে অনেক কিছুই সহজভাবে নিতে পারি না। বোঝার চেষ্টা করি না, এটা একটা ফান শো বা আড্ডা। এই অনুষ্ঠান দেখে আমার কথায় যদি কেউ কষ্ট পেয়ে থাকেন, সেটার জন্য সত্যিই আমি আন্তরিকভাবে দুঃখিত। আপনাদের দুঃখ দেওয়ার জন্য এই অনুষ্ঠানগুলো বা সিনেমা করি না। আপনাদের আনন্দ দেওয়াই আমাদের উদ্দেশ্য।’

দুঃখ প্রকাশ করার সাথে সাথে ক্ষোভও প্রকাশ করেছেন অভিনেত্রী উপস্থাপিকা পূর্ণিমা। ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘আসলে ব্যক্তিগত রেষারেষি থেকে পুরো অনুষ্ঠানের ওই অংশটি কেটে ভিডিওটা ছড়ানো হয়েছে। তবে কারা এবং কেন করেছে তা এখন বলতে চাচ্ছি না। পরে সময় হলে সব জানিয়ে দেব সবাইকে। পূর্ণিমা এই ধরনের প্রশ্ন করার নেপথ্যের কারণ হিসেবে বলেন, ‘মিশা ভাইয়ের সঙ্গে করা প্রথম ছবিটিতে ধর্ষণের দৃশ্য ছিল আমার সঙ্গে। তিনি তো পুরো ক্যারিয়ারে হাজারটা এমন দৃশ্য করেছেন। আর আমিও কমপক্ষে ৫০-৬০টি ছবিতে এই দৃশ্য করেছি। সবই কিন্তু চিত্রনাট্যের দাবিতে করা দৃশ্য মাত্র। সিনেমায় তো খুনোখুনিও হয়, ভালোবাসাও। আমরা তো সেই সিনেমারই মানুষ। অথচ মজার ছলে এই বিষয়ে কথা বলতে গেলে সেটা অন্যভাবে কেন নেওয়া? অনুষ্ঠানে আমাদের অনেক বিষয় নিয়ে আলাপ হয়েছে। কথা প্রসঙ্গে ধর্ষণ সিন বিষয়টাও এসেছে। কারণ, এটি যেকোনো শিল্পীর জন্য একটু কঠিন বিষয়। যেমন মিশা ভাই এই অনুষ্ঠানেই বলেছেন, মৌসুমী আপুর সঙ্গে তার যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক সেটার কারণে তার সঙ্গে এই ধরনের বিশেষ সিন করতে তিনি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন। কারণ, সহশিল্পীর সাপোর্ট ছাড়া আপনি কোনো দিনই ভালো অভিনয় করতে পারবেন না। অথচ এই জানতে চাওয়াটাই এখন জীবনের বড় ভুল হয়ে ধরা দিল। মিশা ভাই তো আমার সামনে বসে আমার কথাও বললেন। কারণ, আমরা বিষয়টাকে একটি দৃশ্য হিসেবেই ট্রিট করেছি। আমাদের মনে কোনো খারাপ উদ্দেশ্য ছিল না। অথচ সেটা নিয়ে এত বড় নোংরামি কেন? তবে এটা ঠিক, গেল এক সপ্তাহে দেশে কিছু অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেছে। কাছাকাছি সময়ে এই অনুষ্ঠানটা অনএয়ার যাওয়ার পর স্বাভাবিক বিষয়টাকে অস্বাভাবিক খাতে প্রবাহিত করা হয়েছে। ভিডিও ক্লিপ বানিয়ে ফেসবুক স্ট্যাটাস দিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করেছে কিছু মানুষ।’

সৈয়দ আশিক রহমানের মূল ভাবনায় আরটিভিতে প্রচারিত সেলিব্রেটি টক-শো ‘এবং পূর্ণিমা’। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করছেন পূর্ণিমা, প্রযোজনা করছেন সোহেল রানা বিদ্যুৎ এবং গ্রন্থনা করছেন অনিন্দ্য মামুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: