Home » জাতীয় » আইন ও বিচার » প্রতিরক্ষাবাহিনী আইনের সংশোধন চায়
প্রতিরক্ষাবাহিনী আইনের সংশোধন চায়
প্রতিরক্ষাবাহিনী আইনের সংশোধন চায়

প্রতিরক্ষাবাহিনী আইনের সংশোধন চায়

দেশে সন্ত্রাস দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে তাই সন্ত্রাসকে প্রতিহত কারার জন্য তাদের কে আইনের আওতায় আনতে হবে। পুলিশের কর্তৃপক্ষ বলেন,অনেক সময় চার্জশিটের অনুমোদনের জন্য মন্ত্রণালয়ে ফাইল পাঠানো হলে তা দিনের পর দিন আটকে থাকে। এর পরিপেক্ষিতে উগ্রপন্থিদের দ্রুত বিচারের আওতায় আনা কষ্ট কর হেয়ে পরছে।

সন্ত্রাসবিরোধী আইনের দুটি ধারা সংশোধন চায় পুলিশ। বর্তমানে এ আইনে মামলা করার সময় তাৎক্ষণিক জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে অবহিত করতে হয়। এ ছাড়া চার্জশিট দেওয়ার আগে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন নেওয়ারও বিধান অনুসরন করতে হয়।পুলিশ বলেন, এ ধারার সংশোধন না হলে বিচার প্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে দীর্ঘসূত্রতা তৈরি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

আজ থেকে শুরু হতে যাওয়া এ বছরের পুলিশ সপ্তাহে এ আইনের বিষয়টি বিশেষভাবে মনোযোগে আসছে। পুলিশ বিভাগ সন্ত্রাসবিরোধী আইনের ৪০ (১) ও ৪০ (২)  ধারার সংশোধন চাইবে।

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেন, দেশের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা ও জননিরাপত্তা বিধানে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান হিসাবে কাজ করে যাচ্ছে পুলিশ। আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় তারা ব্যপক ভূমিকা পালন করছে। সম্প্রতি জঙ্গিবাদ দমনে পুলিশের অনন্য ভূমিকা দেশ-বিদেশে ব্যাপক প্রশংসিত হয়।

পাঁচ দিন ধরে পুলিশ সপ্তাহ-২০১৮ রাজারবাগ পুলিশ লাইন্সে বার্ষিক প্যারেডে ভাষণ দেওয়ার মধ্য দিয়ে উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পুলিশ সপ্তাহ উপলক্ষে করে গত রোববার বাণী দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জানান, মহান মুক্তিযুদ্ধে অপরিসীম ত্যাগ ও বীরত্বগাথার ইতিহাসকে ধারণ করে সগৌরবে এগিয়ে চলছে পুলিশ। সরকার পুলিশকে একটি দক্ষ, জনবান্ধব ও প্রতিশ্রুতিশীল বাহিনীতে উন্নীত করার লক্ষ্যে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে।

এগিয়ে চলেছে পুলিশ : পুলিশের বর্তমান সদস্য সংখ্যা দুই লাখ ৫ হাজার ৮৬০। এর মধ্যে সহকারী পুলিশ সুপার থেকে তদূর্ধ্বের পুলিশ কর্মকর্তা ২১ হাজার ৯৫৬, পরিদর্শক ৬ হাজার ৬২৮, উপপরিদর্শক ২৩ হাজার ৬৩২, কনস্টেবল এক লাখ ২৫ হাজার ৩৫৪ জন। ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ সরকারের ক্ষমতায় আসার পর থেকে পুলিশের নানা সমস্যার জট খুলতে থাকে। দেশের জনবল ঘাটতি পূরন করার পাশাপাশি এসআই ও সার্জেন্ট পদকে তৃতীয় থেকে দ্বিতীয়, পরিদর্শক পদকে দ্বিতীয় থেকে প্রথম (নন ক্যাডার) পদে উন্নীত করা হয়েছে। গঠন করা হয়েছে শিল্প পুলিশ, নৌ পুলিশ, পুলিশ বুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই), ট্যুরিস্ট পুলিশ, নারী পুলিশ ব্যাটালিয়নসহ বিভিন্ন বিশেষায়িত ইউনিট। ২০১৫ সালে পুলিশে ট্রাফিক সার্জেন্ট পদে নারীদের নিয়োগ দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়। জঙ্গিবাদ মোকাবেলায় গত বছর গঠন করা হয় ‘অ্যান্টি টেররিজম ইউনিট।’ এ ছাড়া পুলিশের একটি বিশেষায়িত ব্যাংকের কার্যক্রমও শুরু করা হবে।

পুলিশের উর্ধ্তম কর্মকর্তাদের থেকে জানা যায়, প্রতি বছর পুলিশ সপ্তাহে পুলিশের পক্ষ থেকে নানা দাবি-দাওয়ার কথা তুলে ধরা হয়। এর মধ্যে কিছু দাবি পূরণ হয়, আবার কিছু পূরণের আশ্বাস দেওয়া হয় মাত্র।২০১৭ সালে পুলিশ সপ্তাহে বেশ কিছু দাবি তুলে ধরা হয়। তা হলো- থানা ও আলামত সংগ্রহের স্থান বাড়ানো, আবাসন সমস্যা নিরসন, অ্যান্টি টেররিজম ইউনিট গঠন, বিশেষায়িত ব্যাংক স্থাপন, থানাপ্রতি ৫টি পিকআপ ভ্যান, রাজারবাগ পুলিশ লাইন্স হাসপাতালকে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে উন্নীতকরণ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পুলিশের একজন লিয়াজোঁ কর্মকর্তা নিয়োগ এবং মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, দুদক, পাসপোর্ট অফিস, বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট কর্তৃপক্ষ, কারা অধিদপ্তরসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে গুরুত্বপূর্ণ পদে পুলিশ কর্মকর্তাদের প্রেষণে কাজের সুযোগ

সাত মন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা : প্রথম পুলিশ সপ্তাহে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা সাতটি মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীদের সঙ্গে খোলামেলা আলোচনায় অংশ নেবেন বলে জানান। মন্ত্রণালয়গুলো হলো- অর্থ, গৃহায়ন ও গণপূর্ত, পরিকল্পনা, স্বরাষ্ট্র, ভূমি, জনপ্রশাসন এবং আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়। সেখানে এসব মন্ত্রণালয়ের সচিবরাও থাকবেন। আজ দুপুরে রাজারবাগে পুলিশ সদস্যদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর কল্যাণ প্যারেড অনুষ্ঠিত করা হবে। মঙ্গলবার বেলা ১১টায় আইসিসিতে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাদের সম্মেলন, সন্ধ্যায় রাজারবাগে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে কর্মকর্তাদের বৈঠক করা হবে। রাতে রাজারবাগ পুলিশ অডিটোরিয়ামে সাত মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক। বুধবার দুপুরে বঙ্গভবনে ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাদের উদ্দেশে ভাষণ দেবেন রাষ্ট্রপতি। বৃহস্পতিবার মাঠ পর্যায়ের পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে আইজিপির সম্মেলন ও শুক্রবার আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: