Home » খেলাধুলা » বিশ্বকাপ না জিতলেও দলেই থেকে যাবে মেসি
বিশ্বকাপ না জিতলেও দলেই থেকে যাবে মেসি
বিশ্বকাপ না জিতলেও দলেই থেকে যাবে মেসি

বিশ্বকাপ না জিতলেও দলেই থেকে যাবে মেসি

খুব বেশি কথা বলতে অভ্যস্ত নয় বিশ্বের অন্যতম ফুটবল তারকা লিওনেল মেসি। প্রায়ই দেখা যায় মিডিয়ার সামনে আসতে তার নানা অজুহাত, দেখা যায় অনাগ্রহ। তবে সেই অনাগ্রহ মেসিই আজ নিজে থেকে সাক্ষাৎকার দিলেন আর্জেন্টিনার জনপ্রিয় সংবাদমাধ্যম টিওয়াইসি স্পোর্টসকে।

বার্সেলোনায় তার নিজ বাড়িতে পনে এক ঘন্টার মত সময় নিয়ে সাক্ষাৎকার দিলেন মেসি। সংবাদ মাধ্যমে তার বিশেষ কথা ছিলো বিশ্বকাপে দল ও নিজের পরিকল্পনার বিষয়ে। বার্সেলোনার এই আর্জেন্টাইন তারকা ফরওয়ার্ড কথা বলেছেন ২০১৪ বিশ্বকাপ ফাইনাল নিয়েও। সাক্ষাৎকারের একপর্যায়ে উঠে আসে, দলের প্রতি আর্জেন্টিনার বাসিন্দারের মনোভাবের কথাও।

সাক্ষাৎকারে মেসি বলেন, আমরা যদি জার্মানির মতো হতাম! নিজেদের প্রস্তুত করার, মানুষকে কাজ করতে দেওয়ার, অন্যদের কাজের মূল্যায়ন করার পদ্ধতিটাই ওদের ওখানে ভিন্ন। বিশ্বের সবপ্রান্তে কোনো দল তিনটা টুর্নামেন্টের ফাইনালে উঠলে ওই দলকে মূল্যায়ন করা হয়। কিন্তু এখানে (আর্জেন্টিনায়), ফাইনালগুলোতে জিততে না পারায় আমাদেরকে বলা হয় ‘ঠাণ্ডা হৃদয়ের’ (জার্সির জন্য যার মায়া নেই)। আর্জেন্টিনায় সমাজব্যবস্থা একটু জটিল, আমি বুঝি সেটা। যদি আমরা এবারও হেরে যাই, এই মানুষগুলোই আমাদের জাতীয় দল থেকে বিদায় নিতে বলবে।

পরপর ৩টি ফাইনাল খেললেও ব্যর্থ হয়েছেন আর্জেন্টিনা। তাই এবার বিশ্বকাপ জিততে বেশি ক্ষিপ্ত মেসি বাহিনী। এই বিষয়ে মেসি বলেন, এটা একটা বোঝা, যা আমরা বয়ে নিয়ে বেড়াচ্ছি এবং যেটা থেকে মুক্তি চাইছি। এক দশক ধরে জাতীয় দলে আমরা যারা খেলছি, বিশ্বকাপ জেতা আমাদের সবারই স্বপ্ন।

অবসরের বিষয়ে কথা উঠলে তিনি বলেন, যদি বিশ্বকাপ নাও জিতি, আমি জাতীয় দলে খেলা চালিয়ে যাব। ২০১৬ কোপা আমেরিকার পর (জাতীয় দল থেকে) অবসর নিয়ে আমি বুঝতে পেরেছি, সেটা করা ঠিক হয়নি। ছোট শিশুদের জন্য, নিজের স্বপ্নের জন্য যারা লড়ছে, তাদের জন্য এটি ভুল বার্তা হয়ে দাঁড়াবে। যাই ঘটুকনা কেন, যা করতে চান সেটির জন্য আপনাকে চেষ্টা চালিয়ে যেতেই হবে। লড়তেই হবে।

আর মাত্র ২৮ দিন পরই ফুটবলের সবচেয়ে বড় আসর গড়াচ্ছে রাশিয়ার মাঠে। বিশ্বকাপের প্রস্তুতি প্রসঙ্গে মেসি বলেন, প্রতিবছরই সবকিছু জেতার জন্য লড়ি। প্রতিবছর নিজেকেই নিজে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেই। কারও কাছে কোনো কিছুপ্রমাণের জন্য আমার অন্য কোনো ক্লাবে যাওয়ার দরকারও নেই।

লিগ পরিবর্তনের কথা আসলে তিনি জানান, মাঝেমধ্যে হয়তো অন্য কোনো লিগ, যেমন- ইংলিশ লিগে যাওয়ার ভাবনা আসতে পারে। তবে বার্সেলোনা ছাড়া আমার জন্য কঠিন। আমি বিশ্বের সেরা ক্লাবে আছি। বিশ্বের সেরা শহরগুলোর একটিতে আছি। আমার পরিবার এখানে থিতু হয়ে গেছে। আমার বাচ্চারা ওদের বন্ধুদের সঙ্গে মিশতে পারছে।

সাক্ষাৎকারের এক পর্যায়ে জানতে চাওয়া হয় সেরা খেলোয়াড়েরর খেতাব নিয়ে। এ ব্যাপারে বলেন, সর্বকালের সেরা হওয়া না-হওয়া নিয়ে আমার কোনো আকর্ষণই নেই। প্রতিবছরই যখন নতুন করে শুরু করি, নিজের খেলায় উন্নতির চেষ্টা করি, সবকিছু জেতার চেষ্টা করি। প্রতি ম্যাচেই মাঠে সতীর্থদের আর নিজের জন্য সর্বোচ্চটা দেওয়ার চেষ্টা করি। আপনি যত বেশি শিরোপা জিতবেন, তত ভালো। আর জাতীয় দলের জার্সিতে হলে সবচেয়ে ভালো। কারণ, সেই অভিজ্ঞতা এর আগে কখনো আমার হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: