Home » বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি » প্রযুক্তির খবর » ‘ব্লু হোয়েল’র পর এবার ‘কনডম স্নটিং’, নতুন আতঙ্ক গেম
'ব্লু হোয়েল'র পর এবার 'কনডম স্নটিং', নতুন আতঙ্ক গেম
'ব্লু হোয়েল'র পর এবার 'কনডম স্নটিং', নতুন আতঙ্ক গেম

‘ব্লু হোয়েল’র পর এবার ‘কনডম স্নটিং’, নতুন আতঙ্ক গেম

আধুনিক যুগ মানেই আধুনিক প্রযুক্তি আর ইন্টারনেট নির্ভর প্রতিটি দিন। দিন যতই যাচ্ছে মানুষ ততই ইন্টারনেটে বিভোর হয়ে যাচ্ছে। সোসাল মিডিয়া, বিভিন্ন মিডিয়া, ইউটিউব, আধুনিক প্রযুক্তিতে হাইফাই গ্রাফিক্স এ নির্মিত অসংখ্য গেমস।আর তাই দিনে দিনে তরুনদের পদচারণাই বাড়ছে ইন্টারনেট জগতে।বর্তমানে অনলাইন দুনিয়াকেই তারা বেশি আপন ভাবতে শুরু করেছে। আর এই সুযোগটাকে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন কোম্পানি তাদের মাঝে ছড়িয়ে দিচ্ছে অনলাইনভিত্তিক নানা ধরণের গেমস। যেগুলোর মধ্যে কিছু কিছু গেমস মৃত্যুর কারণও হয়ে দাঁড়িয়েছে।

সাম্প্রতি গত বছর বিশ্বজুড়ে তরুনদের নিয়ে আলোড়ন সৃষ্টি করেছিল ‘ব্লু হোয়েল’ নামের একটি গেম। এই গেমস এর কারনে বহু তরুণ-তরুণীর মৃত্যুও হয়েছে।অসংখ্য তরুন এর কারণ হয়ে মৃত্যুমুখে পতিত হয়েছে। কিন্তু এখন আর সেই মৃত্যু গেমস কারো মগজে চেপে নেই। কিন্তু  ইদানিং আলোচনায় শোনাযাচ্ছে এমনই আর একটি ভয়ঙ্কর গেমস এর নাম। যার নাম ‘কনডম স্নটিং চ্যালেঞ্জ’। নতুন গেমস নিয়ে সারা বিশ্বে আবারো তোলপার শুরু হয়েছে। এই গেমসটির মূল টাস্ক হচ্ছে একটি কনডম নাক দিয়েপ্রবেশ করিয়ে তা মুখ দিয়ে বের করতে হবে। আর এই কাজটি করা খুবই ভয়ঙ্কর। কিন্তু অনেক তরুন-তরুনীরা নতুন এই গেম খেলায় বেশ মেতে উঠেছে।

পূর্বের গেমস এর ধারাবাহিকতার অবলম্বনেই এবার প্রকাশ্যে এলো আরও একটি অনলাইন ভিত্তিক ভয়ঙ্কর গেম। গেমস এর টাস্কে অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল থেকে চকচকে গোল অ্যালুমিনিয়ামের বল তৈরি করতে হয়। আর কাজটি সম্পন্ন করতে অবশ্যই  মাইক্রোওয়েভ ওভেনে ব্যবহার করে তার মধ্যে ফয়েল প্রবেশ করা  হচ্ছে।

এ ব্যাপারে ভারতীয় বেশ কিছু গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ঘটনার শুরু দিন কয়েক আগে। এক ব্যক্তি টুইটারে দু’টি ছবি পোস্ট করেন। একটি ছবিতে দেখা যায় অ্যালুমিনিয়ামের ফয়েলের গোলক। অন্যটিতে চকচকে গোল অ্যালুমিনিয়ামের বল।

টুইটে তিনি লিখেছেন, ২ দিন ৬ ঘণ্টা ও ১৮ মিনিটের চেষ্টায় ফয়েল থেকে  তৈরি করলাম অ্যালুমিনিয়ামের চকচকে একটি বল। এরপরই একে একে বেশ কয়েকটি এই ধরণের ঘটনা সামনে আসে।

শুনে হয়তো ভাবছেন টাস্কাটি খুবই সহজ। কিন্তু তা মোটেও না। কেননা, এমন কাজে ঘটতে পারে নানান বিপজ্জ্বনক ঘটনা। যেমন- অ্যালুমিনিয়াম খুব সহজেই উত্তপ্ত হয়ে যায়। আর মাইক্রোওয়েভ ওভেনে এটা গরম করতে গেলে অল্প আচেই আলোর ফুলকি বেরিয়ে আসবে এবং সেই সাথে সৃষ্টি হবে বড় ধরণের বিস্ফোরণ।

শুধু এই নয় ইতিমধ্যে অনেকেই কাজটি করতে গিয়ে রীতিমতো মাইক্রোওয়েভ ওভেনের পোড়া দাগসহ ছবিও প্রকাশ করছেন। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এটি ভয়ঙ্কর প্রবণতা। এমনটা আদৌ সম্ভব নয়, বরং এতে প্রাণহানি হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: