Home » খেলাধুলা » ক্রিকেট » মাথায় বলের আঘাতে কাতর শোয়েব মালিক
মাথায় বলের আঘাতে কাতর শোয়েব মালিক
মাথায় বলের আঘাতে কাতর শোয়েব মালিক

মাথায় বলের আঘাতে কাতর শোয়েব মালিক

নিউজিল্যান্ডের হ্যামিল্টনে চতুর্থ ওয়ানডেতে স্বাগতিকদের সাথে পাকিস্তানের খেলা চলছিল।  স্বাগতিকদের মাঠে এমনিতেই পাকিস্তান নিজেদেরকে মেলে ধরতে পারছে না। আর এরই মধ্যে মাথায় বলের আঘাত পেয়ে ভয় ধরিয়ে দিয়েছিলেন পাকিস্তানের শোয়েব মালিক।    পাকিস্তানের ইনিংসে তখন  ৩২তম ওভারের খেলা চলছিল। সেই একই ওভারের দ্বিতীয় বলে সিঙ্গেল নেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন শোয়েব মালিক।  অন্য প্রান্তে থাকা অপর ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ হাফিজ তাঁকে রান নেওয়া থেকে ফিরিয়ে দেন। শোয়েব নিজের প্রান্তে ছুটে যাওয়ার সময় কভার অঞ্চল থেকে থ্রো করেন কলিন মানরো। বলটা সরাসরি মালিকের মাথায় আঘাত হানে!

পাকিস্তানের এ অলরাউন্ডারের মাথায় বলটা এত জোরে আঘাত হেনেছে যে ফাইন-লেগ অঞ্চল দিয়ে তা সীমানা-দড়ি পার হয়ে যায়। তখন তাঁর মাথায় হেলমেট না থাকায়  সবাই ভয় পেয়ে যান। কিন্তু দ্রুতই নিজেকে সামলে নিলেও উইকেটে বেশিক্ষণ থাকতে পারেননি পাকিস্তানি এই অলরাউন্ডার। চার বল পরই আউট হয়ে ফিরেছেন। তবে পরে কিছুটা সমস্যায় পড়েছেন।

পাকিস্তান ক্রিকেট  দলের চিকিৎসক ভিবি সিং তাঁর চোট সম্পর্কে বলেন, ‘শোয়েব মালিককে ম্যাচ চলাকালিন যেসব চিকিৎসক থাকে তারা সবাই সমলে চিকিৎসা করেছ। আঘাতটা শুরুতে তেরকম মনে না হওয়ায় ব্যাটিং চালিয়ে যেতে পেরেছেন তিনি। আউট হওয়ার পর তাকে পুনরায় পরীক্ষা করা হয় এবং মাথায় আঘাতের লক্ষ্মণ পাওয়া গেছে। সে এখন ভালো আছে এবং বিশ্রাম নিচ্ছেন।

পাকিস্তানের কোচ মিকি আর্থার অবশ্য তাঁর শিষ্যের চোট নিয়ে কিছুটা ভাবনায় পড়েছেন। ম্যাচ-পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে মিকির ভাষ্য, ‘তাঁর মাথায় আঘাত রয়েছে। এই মুহূর্তে ভালো নেই। চূড়ান্ত প্রতিবেদন এখনো পাইনি।’ আউট হয়ে ফেরার পর শোয়েব কিন্তু আর ফিল্ডিংয়ে নামেননি। বোলিংয়ে তাঁর অনুপস্থিতি টের পেয়েছে পাকিস্তান। চতুর্থ ওয়ানডেতেও ৫ উইকেটে হেরেছে আর্থারের শিষ্যরা। শোয়েবের অভাব টের পাওয়ার কথা স্বীকারও করলেন আর্থার, ‘তাঁর ১০ ওভার অফ স্পিন বোলিং আমাদের জন্য ভীষণ দরকার ছিল।’

One comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: