Home » জাতীয় » ময়মনসিংহ জেলা এখন পরিষ্কার-পরিছন্নতার শহর
ময়মনসিংহ জেলা এখন পরিষ্কার-পরিছন্নতার শহর
ময়মনসিংহ জেলা এখন পরিষ্কার-পরিছন্নতার শহর

ময়মনসিংহ জেলা এখন পরিষ্কার-পরিছন্নতার শহর

ভোরে  ময়মনসিংহ জেলা শহরের রাস্তায় হাঁটতে বের হলে লোকজন বিড়ম্বনায় পড়তেন। কারণ সকালে ঘুম থেকে উঠে মানূষ যদি খোলা মনে একটু  রাস্তায় হাটতে বের হতো তাহলে চোখে পড়তো  আবর্জনার  এক বিশাল স্তূপ রাস্তার দুধারে পরে রয়েছে। এ অবস্থার পরিবর্তন ঘটেছে  গত বেশ কিছু দিন ধরে। এখন সকালে বের হলেই দেখা যাচ্ছে পরিষ্কার- পরিচ্ছন্ন শহর। দেখে মনে হচ্ছে এ যেন নতুন এক ময়মনসিংহ শহর।

ময়মনসিংহ পৌরসভা কর্তৃক বছরের প্রথম দিন থেকে অর্থ্যাৎ ১লা জানুয়ারি থেকে শহরের এ ইতিবাচক পরিবর্তনের উদ্যোগ নিয়েছে তারা। পৌরসভার কর্মীরা রাতের বেলা আবর্জনা অপসারণের কাজ করছে এবং  সন্ধ্যার পর বিভিন্ন সড়কের ডাস্টবিন থেকে আবর্জনা অপসারণ করে রাতের মধ্যেই তা ভাগাড়ে ফেলে দিচ্ছেন। আর তাই সেজন্য ভোরে ঘুম থেকে জেগেই পৌরবাসী দেখতে পাচ্ছেন পরিচ্ছন্ন শহর। যেখানে আগে আবর্জনা অপসারণ করতে দুপুর গড়িয়ে বিকেল হয়ে যেত।

গত মঙ্গলবার ও শুক্রবার ময়মনসিংহ শহরের পুরোনো ফুলবাড়িয়া বাসস্ট্যান্ড এলাকায় সকালে  আবর্জনা চোখে পড়েনি। অথচ সকালে সেখান দিয়ে চলাচল করা বেশ কষ্টদায়ক ছিল। সড়ক গুলো ঝাড়ু দেওয়া ছিল।

ফুলবাড়িয়া বাসস্ট্যান্ড এলাকায় পথচারী আবদুস সামাদ নামের একজন বলেন, রাতে আবর্জনা অপসারণের উদ্যোগটি প্রশংসনীয়। জানুয়ারি থেকে শহরে আবর্জনা চোখে পড়ছে না।

তবে শহরের ডিবি রোড ও হরিকিশোর রায়সহ আরও অনেকেই সড়ক দিয়ে চলাচল করার সময় বলেন, রাতে আবর্জনা অপসারণের কাজ শুরু হওয়ার পর প্রথম সাত দিন পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা কাজে বেশি মনোযোগী ছিলেন। তাঁদের সেই মনোযোগ কিছুটা কমে গেছে বলে মনে হচ্ছে। গতকাল সকালে ওই দুটি সড়কের ডাস্টবিন থেকে আবর্জনা অপসারণের পর স্থানটি ঝাড়ু দেওয়া হয়নি।

পৌরসভার স্বাস্থ্য পরিদর্শক দীপক মজুমদার গত শুক্রবার বলেন, রাত সাড়ে ১০টার মধ্যে নির্দিষ্ট স্থানে ময়লা ফেলার কথা। তাঁদের ধারণা, ওই স্থানে এরপর ময়লা ফেলা হয়েছে। এ বিষয়ে শহরবাসীকে আরেকটু সচেতন হতে হবে। এরপরও অসুবিধা হলে খতিয়ে দেখা হবে।

পরিচ্ছন্ন ময়মনসিংহ শহর গড়তে রাতের বেলা আবর্জনা অপসারণের এ উদ্যোগ নিয়েছেন মেয়র মো. ইকরামুল হক। এ লক্ষ্যে গত ডিসেম্বরে পৌরসভার পক্ষ থেকে শহরের বিভিন্ন শ্রেণির মানুষের সঙ্গে মতবিনিময় করেন তিনি। তাতে রাতের বেলা আবর্জনা অপসারণের পক্ষে নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা বিভিন্ন পরামর্শ দেন। এরপর শুরু হয় প্রচারণা। এতে শহরের মানুষকে সন্ধ্যার আগে আবর্জনা নির্ধারিত স্থানে জমা করতে বলা হয়।

১ জানুয়ারি আনুষ্ঠানিকভাবে রাত্রিকালীন আবর্জনা অপসারণ কাজের উদ্বোধন করে মেয়র ইকরামুল হক। এ সময় তিনি বলেন, ‘আমরা পরিচ্ছন্ন ময়মনসিংহ নগর গড়তে চাই। রাত্রিকালীন আবর্জনা অপসারণের সিদ্ধান্ত অনেক চিন্তাপ্রসূত। আশাকরি, এটি ফলপ্রসূ হবে। এতে শহরবাসীর সহযোগিতা প্রয়োজন।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: