Home » এশিয়া » রাশিয়ায় তৈরি হলো বিশ্বের সবচেয়ে ভয়ঙ্কর সাবমেরিন!!!
রাশিয়ায় তৈরি হলো বিশ্বের সবচেয়ে ভয়ঙ্কর সাবমেরিন!!!
রাশিয়ায় তৈরি হলো বিশ্বের সবচেয়ে ভয়ঙ্কর সাবমেরিন!!!

রাশিয়ায় তৈরি হলো বিশ্বের সবচেয়ে ভয়ঙ্কর সাবমেরিন!!!

উন্মুক্ত করা হচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে ভয়ঙ্কর সাবমেরিন। কাজান বা কে-৫৬১ নামের এই রুশ সাবমেরিন বা ডুবোজাহাজ চলতি বছরেই দেশটির নৌবাহিনীতে অন্তর্ভুক্ত করা হবে। পুতিন সরকার শক্তিশালী এই সাবমেরিনটি উম্মোচন করবেন। দেশটির পরমাণুবিদদের দাবি এটি বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী অ্যাটাক সাবমেরিন।

ইতোমধ্যেই অত্যাধুনিক পরমাণু শক্তিচালিত সাবমেরিন ‘কাজান’কে পানিতে নামানো হয়েছে। রাশিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় বন্দর সেভারোদভিসিস্কে ইয়াসেন ১ম শ্রেণির ডুবোজাহাজ কাজানের সমুদ্রে নামানোর অনুষ্ঠানটি করা হয়। তবে সাগর পরীক্ষা শেষ করার পর চলতি বছরেই রুশ নৌবাহিনীতে কাজানকে অন্তর্ভুক্ত করা হবে।

নতুন এই সাবমেরিন যুক্ত হওয়ায় সাগরে টহল দেওয়ার ক্ষেত্রে রুশ নৌবাহিনী প্রাক্তন সোভিয়েত আমলের পর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছে বলে জানিয়েছেন রুশ নৌবাহিনীর প্রধান অ্যাডমিরাল ভ্লাদিমির কোরোলেভে। এ ছাড়া, ২০২৩ সালের মধ্যে একই শ্রেণির আরও চারটি ডুবোজাহাজ তৈরি করা হবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন রাশিয়ান নৌবাহিনী প্রধান।

রুশ নৌবাহিনীর প্রচলিত ডুবোজাহাজ বাহিনীর পুরনো ‘আকুলা’ শ্রেণির ডুবোজাহাজের স্থলাভিষিক্ত হবে ইয়াসেন এম শ্রেণি। কাজান তৈরির আগে ‘আকুলা’ শ্রেণিকেই রুশ নৌবাহিনীর প্রধান অ্যাটাক সাবমেরিন হিসেবে গণ্য করা হত।

নতুন তৈরি এই সাবমেরিন ৩১ কিলোনট বেগে চলতে পারে। এতে তিনশ টর্পেডো ও অন্যান্য অস্ত্র সজ্জিত করার ব্যবস্থা রয়েছে। রাশিয়ান রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা তাস জানিয়েছে, নতুন এ সাবমেরিন শত্রুপক্ষের সাবমেরিনকে ধ্বংস করতে পারে। এছাড়া এটি জাহাজ, নৌঘাটি ও বন্দর ধ্বংস করতে সক্ষম। এই ডুবোজাহাজটিতে ৯০ জন ক্রু থাকার ব্যবস্থা রয়েছে। এছাড়া সাবমেরিনটি পানির ৬০০ মিটার নিচে নামতে পারে। বাইরের কোনো সহায়তা ছাড়া এটি ১০০ দিন পানির নিচে থাকতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: