Home » খেলাধুলা » ক্রিকেট » রেকর্ডের খাতায় নাম লেখাল মিরপুর স্টেডিয়াম
রেকর্ডের খাতায় নাম লেখাল মিরপুর স্টেডিয়াম
রেকর্ডের খাতায় নাম লেখাল মিরপুর স্টেডিয়াম

রেকর্ডের খাতায় নাম লেখাল মিরপুর স্টেডিয়াম

ক্রিকেটে সেঞ্চুরি করার রেকর্ড করে খেলোয়াররা। যেমন একদিন আগে বাংলাদেশের হয়ে উইকেটের সেঞ্চুরি করলেন বাংলাদেশের রুবেল হোসেন। কিন্তু আজ জিম্বাবুয়ে ও শ্রীলংকার মধ্যকার ত্রিদেশীয় ওয়ান্ডে ম্যাচ দিয়ে নতুন এক রেকর্ড গড়ল বাংলাদেশের মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়াম । আজ জিম্বাবুয়ে ও শ্রীলংকার মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে সেই মাঠেরই ‘সেঞ্চুরি’ হয়ে গেল। ইতিহাসের দ্রুততম সময়ে ১০০ ওয়ানডের আয়োজক হওয়ার কীর্তি গড়ল বাংলার  মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়াম। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলায় বিশ্বের মধ্যে মাত্র ৫ স্টেডিয়ামের ১০০টি ওয়ানডে ম্যাচ  হওয়ার কীর্তিই আছে। এবার দেখা যাক এই মাঠের আরও কিছু বিস্ময়কর রেকর্ড —

আন্তর্জাতিকভাবে ক্রিকেটে একদিনের ম্যাচ আয়োজনে সবার আগে সেঞ্চুরি ছুঁয়েছে শারজা ক্রিকেট গ্রাউন্ড। ১৯৯৬ সালের ১৪ এপ্রিল শারজার শততম ওয়ানডেতে খেলেছে ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকা।এরপর শততম ওয়ানডে ম্যাচ আয়োজন করেছে সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ড । তারপর মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ড, হারারে স্পোর্টস ক্লাব,প্রেমাদাসা স্টেডিয়াম, কলম্বো। আর সবচেয়ে কম সময়ে শততম ওয়ানডে আয়োজন করল যাচ্ছে বাংলাদেশের মিরপুর শেরেবাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়াম। অভিষেকের পর থেকে ১১ বছর ১ মাস ১০ দিনের মাথায় সেঞ্চুরি হলো শেরেবাংলার। এরপরই আছে শারজা ক্রিকেট স্টেডিয়াম। যার সময় লেগেছে  (১২ বছর ৯ দিন)।

সবচেয়ে বেশি ওয়ানডে হয়েছে যে মাঠগুলোতে

আন্তজাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের নাম সময়কাল ম্যাচ
শারজা ক্রিকেট স্টেডিয়াম ১৯৮৪২০১৭ ২৩১
সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ড ১৯৭৯২০১৭ ১৫৪
মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ড ১৯৭১২০১৮ ১৪৮
হারারে স্পোর্টস ক্লাব ১৯৯২২০১৭ ১৩৬
প্রেমাদাসা স্টেডিয়াম, কলম্বো ১৯৮৬২০১৭ ১২৪
শেরেবাংলা স্টেডিয়াম, ঢাকা ২০০৬২০১৮ ১০০

 

শেরেবাংলা স্বেটডিয়ামের  প্রথম ৯৯ ওয়ানডে ম্যাচের রেকর্ড 

 

 ম্যাচে একজন ব্যাটিং এর সর্বোচ্চ ইনিংস ১৮৫ *
সর্বোচ্চ ইনিংস শেন ওয়াটসনের। ২০১১ সালে বাংলাদেশের বিপক্ষে ১৫ চার ও ১৫ ছক্কায় ১৮৫ রান করেছিলেন অস্ট্রেলীয় অলরাউন্ডার। সেই ম্যাচে শেন ওয়াটসনের একার কাছেই বাংলাদেশ হেরেছিল।
সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রহ ১০৬টি
শেরেবাংলা ক্রিকট স্টেডিয়াম এ সবচেয়ে বেশি উইকেট সাকিব আল হাসানের। যার উইকেট সংখ্যা ১০৬টি।
 
 সেরা বোলিং ফিগার  ৪ রানে ৬ উইকেট
এই মাঠে সেরা বোলিং  ভারতের স্টুয়ার্ট বিনির। ২০১৪ সালে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৪.৪ ওভারে ৪ রান দিয়ে ৬ উইকেট নেন ভারতীয় এই পেসার।
সবচেয়ে বড় জুটি ২২৪ রানের
এই মাঠে সবচেয়ে বড় জুটি পাকিস্তানের মোহাম্মদ হাফিজ ও নাসির জামশেদের। ২০১২ এশিয়া কাপে ভারতের বিপক্ষে প্রথম উইকেটে এই দুইজন করেন ২২৪ রানের জুটি।
বেশি সংখ্যক ৭৯ম্যাচ খেলা ক্রিকেটার
মিরপুর শেরেবাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়াম মাঠে  সবচেয়ে বেশি ওয়ানডে খেলেছেন বাংলাদেশের মুশফিকুর রহিম। তিনি এই মাঠে ৭৯ ম্যাচে নেমেছেন।
 ৪৬টি সেঞ্চুরি
শেরেবাংলায় ওয়ানডে সেঞ্চুরির সংখ্যা এখন পর্যন্ত ৪৬টি।
 সবচেয়ে বেশী রানএর মালিক
বর্তমানে এইমাঠে সবচেয়ে বেশি রান  এখন তামিম ইকবালের। ওয়ানডেতে এক ভেন্যুতে সবচেয়ে বেশি রানের রেকর্ড ভাঙতে ১২৬ রান দরকার বাংলাদেশের ওপেনারের। কলম্বোর প্রেমাদাসায় ২৫১৪ রান করে সবার ওপরে আছেন সনাৎ জয়াসুরিয়া।
 বেশী সংখ্যক সেঞ্চুরি
সবচেয়ে বেশি সেঞ্চুরিও  বাংলাদেশের ওপেনার তামিম ইকবালের।যার সেঞ্চুরির সংখ্যা ৫টি। আর চার সেঞ্চুরি নিয়ে দুইয়ে ভারতের বিরাট কোহলি।

 

বাংলাদেশের মিরপুর শেরেবাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়াম এর সাথে জিম্বাবুয়ের যেন একটা অন্তরঙ্গ মিল রয়েছে। কারণ শুরুতেও মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের সঙ্গে যেন জিম্বাবুয়ের অদৃশ্য মিতালি! ডিসেম্বর ৮,২০০৬-মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে প্রথম ওয়ানডেতে একটি দল ছিল জিম্বাবুয়ে। আজ মিরপুরের শততম ওয়ানডেতেও আছে জিম্বাবুয়ে! কাল সংবাদ সম্মেলনে তা মনে করিয়ে দিলেন হ্যামিল্টন মাসাকাদজা,তার কথায় ‘এখানে প্রথম ম্যাচটাতেও আমরা খেলেছি, আর শততম ম্যাচেও আমরা খেলছি। ঐতিহাসিক উপলক্ষের সাক্ষী হতে তো ভালোই লাগে।’ ‘আমরা’ বলতে অবশ্য জিম্বাবুয়ের পুরো দলের মধ্যে চাইলে তিনজনকে আলাদা করেও বোঝাতে পারতেন মাসাকাদজা। তিনি নিজে, ব্রেন্ডন টেলর আর ক্রিস্টোফার পোফু-এই তিনজনই ছিলেন ১১ বছর আগের সেই জিম্বাবুয়ের ওয়ানডে একাদশে।

শেরেবাংলায় সবচেয়ে বেশি ম্যাচ
 দলের নাম ম্যাচ জয় হার টাই/পরি.
বাংলাদেশ ৮৪ ৪০ ৪৩ /
ভারত ২২ ১৪ /
জিম্বাবুয়ে   ১৬ /
শ্রীলঙ্কা   ১২ /
পাকিস্তান ১৬ ১০ /

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: