Home » খেলাধুলা » ক্রিকেট » লজ্জা জনক হার দিয়ে সাউথ আফ্রিকা সফর শুরু
লজ্জা জনক হার দিয়ে সাউথ আফ্রিকা সফর শুরু
লজ্জা জনক হার দিয়ে সাউথ আফ্রিকা সফর শুরু

লজ্জা জনক হার দিয়ে সাউথ আফ্রিকা সফর শুরু

সাউথ আফ্রিকা ও ভারতের টেস্ট ম্যাচ শেষে মনে হলো  এটা একটা গল্পের কথা ‘এ বলে আমায় দেখ, তো ও বলে ওরে’ অবস্থা!

সকালে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকানরা ভারতের  পেস বলের কাছে অসহায়ভাবে আত্বপ্রকাশ করল তাই দেখে সফরকারি ভারতীয় ব্যাটসম্যানরাও মনে মনে ভাবলেন যে, ‘আমরা  তাহলে বাদ যাব কেন! উপমহাদেশের ব্যাটসম্যান হিসেবে আমাদের তো একটা সুনাম আছে’ তাই দুপুরের সেশনেই সে বিষয়টা ভালভাবে  বুঝে নিয়েছিল  সফরকারী ভারত। তাই স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকার বলিং ঝড়ের সামনে  তুরুপের তাসের ঘরের মতো ভেঙ্গে গেল ভারতীয় ব্যাটিং স্তম্ভ।একমাত্র  ফিল্যান্ডারের বলিং  এর সামনে  ১৩৫ রান তুলতেই শেষ হয়ে যায় ভারতীয় সব ব্যাটসম্যানদের জীবন। অলআউট হয়ে যায়  ভারত। তাই প্রথম টেস্টে ৭২ রানে হেরে হিসাবের খাতায় ভূল করল বিরাট কোহলিদের ভারত।
কেপটাউনে যে পেসাররা  দাপট দেখাবে তা প্রথম দিন থেকেই বুঝা যাচ্ছিল কিন্তু আরও যে ভয়ংকর  রুপ ধারন করবে, সেটা  গতকাল সকাল অবধি বুঝা যায়নি। গতকাল স্পিন বোলার হিসাবে মাত্র এক ওভার বল হাতে পেয়েছিলেন ভারতের রবিচন্দ্রন অশ্বিন। আর বাকি সব ওভার বল করেছে বারতের পেসাররা।

এদিকে স্বাগতিকদের পেস বোলার ডেল স্টেইন আগের দিন চোট পেয়ে  চলে যান মাঠের  বাইরে। মাত্র তিন বোলার নিয়েই খেলতে থাকে স্বাগতিকরা।  ভারতীয় ব্যাটিংয়ের যে অবস্থা, তাতে করে তিন পেসার দিয়েই  ভারতকে কাঁপিয়ে দিতে পারবে দক্ষিণ আফ্রিকা।একসময়তো মনে হচ্ছিলো  স্বাগতিকদের দ্বিতীয় ইনিংসের ১৩০ রান  টপকাতে পারবে কিনা সফরকারি ভারত।

ভারতের দ্বিতীয় ইনিংসের শুরুতেই জমে ওঠে কাহিনী। ভারতীয় ওপেনার মুরালি বিজয়কে,   এলবিডব্লু এর ফাদে ফেলে আউট করেন  ভারনন ফিল্যান্ডার কিন্তু সে যাত্রায় রিভিউ নিয়ে  পাণে বেঁচে যান ভারতীয়  এই ওপেনার। খেলা চলার  চার ওভার পরে আবারও  সেই একই নাটক। আউট হওয়া , রিভিউ নেওয়া এবং প্রাণে রক্ষা পাওয়া। কিন্তু এবার আর রক্ষা নেই ।তার এক ওভার পর এসেই বিজয়ের উইকেট তুলে নেন  ফিল্যান্ডার। এর মাঝে আবার ধাওয়ানের উইকেট  নিয়েছিলেন মরনে মরকেল। পূজারাও ৩৯ রান করে পথ ধরলেন ড্রেসিংরুমের দিকে।
এর পর আসে স্বাগতিকদের সেরা সময় যখন কোহলি ও রোহিত শর্মা এই দুজনে মিলে ৩২ রানের জুটি গড়ে ইনিংস মেরামতের কাজ শুরু করতেছিলো। এমন সময় আবারও শুরু হলো ফিল্যান্ডার  ঝড়। কোহলিকে (২৮) রানে এলবিডব্লুর ফাঁদে ফেলে  আউট করলেন প্রান্ত বদল করে এক টানা প্রায় ১২ ওভার বল করা  দক্ষিণ আফ্রিকার এই এই পেসার। রিভিউ নিয়েও  কাজ হয়নি কোহলির।আউট হয়ে যান। এর পরের ওভারে রোহিত শর্মা রাবাদার বলে ক্যাচ তুলে দিলেও  বেঁচে যান কিন্তু  পরের ওভারেই ফিল্যান্ডারের শিকার হয়ে আউট হন,তখন দলের রান ৭৬।

প্রথম ইনিংসের নায়ক পান্ডিয়া এ ইনিংসে  দলীয় ৭৭ রানের মাথায় ১ রান করেই ক্যাচ হয়েছেন এবি ডি ভিলিয়ার্সের। আর সেশনটাকে পরিপূর্ণতা দেওয়ার জন্য হয়তো ২৯তম ওভারের শেষ বলে রাবাদার বলেই এলবিডব্লু  শীকার হন ভারতের শেষ স্বীকৃত ব্যাটসম্যান ঋদ্ধিমান সাহা। তিনিও কিন্তু ব্যর্থ হন রিভিউ নিয়ে। ৭ উইকেটে ৮২ রান সংগ্রহ এমনসময় চা বিরতিতে যায় ভারত।
এরপর  অষ্টম উইকেটে ৪৯ রানের একটি জুটি গড়েছিলেন অশ্বিন ও ভুবনেশ্বর কুমার। কিন্তু শেষ রক্ষা আর হলো না , চার বলের মধ্যে পরপর  শেষ ৩ উইকেট তুলে নিয়ে ভারতের প্রতিরোধের দেয়াল শেষ করে দেন ফিল্যান্ডার তার সিডর খ্যাত বলিং ঝড়ে।ফিল্যান্ডার তার বলিং ঝড়ে ৪২ রানে ৬ উইকেট তুলে  নেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: