Home » জাতীয় » সরকারি বাসভবন থেকে মোনাজাতে অংশ নিলেন প্রধানমন্ত্রী
সরকারি বাসভবন থেকে মোনাজাতে অংশ নিলেন প্রধানমন্ত্রী
সরকারি বাসভবন থেকে মোনাজাতে অংশ নিলেন প্রধানমন্ত্রী

সরকারি বাসভবন থেকে মোনাজাতে অংশ নিলেন প্রধানমন্ত্রী

টঙ্গীর তুরাগ তীরে মুসমানদের তাবলিগ জামাতের বৃহত্তম এই সম্মেলনের প্রথম পর্ব আজ শেষ হলো। ৫৩তম বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বের আখেরি মোনাজাতে অংশ নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী তার সরকারি বাসভবন  থেকে আখেরি মোনাজাতে অংশগ্রহণ করেন।

প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান, সামরিক সচিব মেজর জেনারেল মিয়া মোহম্মদ জয়নুল আবেদীন, প্রেস সচিব ইহসানুল করিম, বিশেষ সহকারি ড. আবদুস সোবহান গোলাপ এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ও গণভবনের কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ এ সময় সেখানে মোনাজাতে অংশগ্রহণ করেন।

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মনি ও কৃষি বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলিসহ প্রধানমন্ত্রীর পরিবারের সদস্য ও আত্মীয়রা এ সময় গণভবনে তার সঙ্গে মোনাজাতে অংশ নেন।

বিশ্ব ইজতেমার আখেরি মোনাজাতে মুসলিম উম্মাহর ঐক্যের পাশাপাশি দেশ ও জাতির অব্যহত শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করা হয়।

মোনাজাত পরিচালনা করেন কাকরাইল জামে মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম মাওলানা মো. জুবায়ের ।মোনাজাত ও ‘হেদায়েতী বয়ান’ এই বছরই প্রথম বাংলায় করা হয়।

ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, মাদারীপুর, গাইবান্ধা, পটুয়াখালী, নড়াইল, মাগুরা, পঞ্চগড়, শেরপুর, লাক্ষ্মীপুর, ভোলা, ঝালকাঠী, নীলফামারী ও নাটোরসহ দেশের ১৬টি জেলার লাখ লাখ মুসল্লি ইজতেমার প্রথম পর্বের আখেরি মোনাজাতে অংশগ্রহণ করেন।

ইজতেমার প্রথম পর্বে ৮৮টি দেশের প্রায় ৪ হাজার ৪৭৩ জন বিদেশি মুসল্লি অংশ নিয়েছে।  ১৯ থেকে ২১ জানুয়ারি বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব আরম্ভ হবে। দেশের অবশিষ্ট ১৬টি জেলার মুসল্লিরা সেখানে অংশ নিবেন।

শুক্রবার ফজর নামাজের পর  বয়ানের মধ্য দিয়ে বিশ্ব ইজতেমা প্রথম পর্বের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। আজ আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে তা শেষ হল।

ইজতেমার প্রথম পর্বে বিশিষ্ট ওলামায়ে মাশায়েখবৃন্দ তাদের বয়ানে মধ্যদিয়ে পবিত্র কুরআন ও সুন্নার আলোকে পরিচালিত হওয়ার আহ্বান জানান। এ সময় ইজতেমার বিভিন্ন বয়ানে বিশ্বের বিভিন্ন ভাষায় অনুবাদ করে শোনানো হয়।

১৯৬৭ সাল  নয়াদিল্লী ভিত্তিক তাবলিগ-ই-জামাত এই বিশ্ব ইজতেমার আয়োজন করে আসছে ১৯৬৭ সাল থেকে শুরু করে  ।

২০১১ সাল থেকে ইজতেমায় দেশ-বিদেশের বিপুলসংখ্যক মুসল্লি আসতে থাকায় চাপ কমাতে ও সুষ্ঠুভাবে জমায়েতটি পরিচালনা করার স্বার্থে  বিশ্ব ইজতেমাকে দুইটি পর্ব করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: