Home » খেলাধুলা » ২০১৮ সালে ফুটবলে হতে যাচ্ছে যত সব বিশ্ব রেকর্ড
২০১৮ সালে ফুটবলে হতে যাচ্ছে যত সব বিশ্ব রেকর্ড
২০১৮ সালে ফুটবলে হতে যাচ্ছে যত সব বিশ্ব রেকর্ড

২০১৮ সালে ফুটবলে হতে যাচ্ছে যত সব বিশ্ব রেকর্ড

রেকর্ড তো  হয় ভাঙার জন্য। প্রতিবছর এটা আর নতুন কী! ২০১৮ সালেও বিশ্ব ফুটবলে নতুন   কিছু ধরনের রেকর্ড আছে গড়ার অপেক্ষায়।

 ১৯১ টি গোল

৩৯ বছর বয়সী পেরুভিয়ান স্ট্রাইকার ক্লদিও পিজারোর জার্মান লিগে বিদেশি ফুটবলারদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি গোলের মালিক এবংএখনো  তিনি বুন্দেসলিগাতেই খেলছেন, কোলোনের হয়ে। গত মার্চের পর আর গোলের কোন দেখা  পাননি। তাই  তাঁর রেকর্ড ভাঙতে উসাইন বোল্টের গতিতে ধেয়ে আসছেন এক পোলিশ স্ট্রাইকার-রবার্ট লেভানডফস্কি। বরুসিয়া ডর্টমুন্ড ও বায়ার্ন মিউনিখে সাত বছরে তাঁর গোলের সংখ্যা ১৬৬টি। আরেকটা রেকর্ডেও দ্বিতীয়  রবার্ট লেভানডফস্কি । যার ম্যাচপ্রতি গোলের হিসাবে (০.৬৮) তে। যে তালিকায় এখনো সবাইকে ছাড়িয়ে আছেন এক কিংবদন্তি-জার্ড মুলার যার ম্যাচপ্রতি গোলের হিসাবে  (০.৮৫)।

 ৯টি সিরি‘আ’ সিরোপা  জয়

জুভেন্টাসের হয়ে সিরি ‘আ’ জিতলেই রেকর্ড গড়ে ফেলবেন জিয়ানলুইজি বুফন। সবচেয়ে বেশি ৯টি সিরি ‘আ’ জয়ের রেকর্ড। সর্বোচ্চ ৮টি সিরি ‘আ’র রেকর্ডটা এখন ভার্জিনিও রোসেত্তা, জিওভান্নি ফেরারি ও জিউসেপ্পে ফুরিনোর সঙ্গে ভাগাভাগি করছেন ‘জিজি’। লিগে বাকি ১৮ ম্যাচের সবগুলোয় খেললে ইতালিয়ান লিগে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ (৬৪৭) খেলার রেকর্ডটা ছুঁয়ে ফেলবেন বুফন, যেটি এখন এসি মিলান কিংবদন্তি পাওলো মালদিনির। আর এটাই সম্ভবত বুফনের   ক্যারিয়ারের শেষ মৌসুম।

 ১০০ পয়েন্টের রেকর্ড

স্প্যানিশ লিগে দুবার পয়েন্টের ‘সেঞ্চুরি’ করে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে কোন দুটি দল সেটা জানা আছে কি? আর সেই দুটি দল হলো  ২০১১-১২ মৌসুমে রিয়াল মাদ্রিদ, পরের মৌসুমে বার্সেলোনা। এবার  সেই শতক ছাড়িয়ে যাওয়ারও সম্ভাবনা আছে বার্সার। ১৮ ম্যাচেই ৪৮ পয়েন্ট হয়ে গেছে, ম্যাচ প্রতি ২.৬৭ হারে। বাকি কাজটা তো ‘সহজ’ই, অন্তত অঙ্কের হিসাবে। ১০১ পয়েন্ট পেতে বাকি ২০ ম্যাচে লাগবে ৫৩ পয়েন্ট, ম্যাচপ্রতি ২.৫৫। এদিকে লিগে সবচেয়ে কম গোল হজম করার রেকর্ডও হাতছানি দিচ্ছে বার্সাকে। ১৯৩১-৩২ মৌসুমে রিয়াল মাদ্রিদ গোল খেয়েছিল মাত্র ১৫টি। এবার বার্সা এখন পর্যন্ত গোল খেয়েছে ৭টি।

বিশ্বকাপে দুবার ৫টি গোল

২০১০, ২০১৪. গত দুই বিশ্বকাপেই ৫টি করে গোল করেছিলেন জার্মান ফরোয়ার্ড, টমাস মুলার?    এবার ২০১৮ বিশ্বকাপ ফুটবলেও কি  টমাস মুলার গোল করতে পারবে?   এই জার্মান ফরোয়ার্ড,   যদি এই বিশ্বকাপেও ৫টি গোল করতে পারে তাহলে বিশ্বের প্রথম ফুটবলার হিসেবে পরপর তিন বিশ্বকাপে  ৫টি করে গোল করার রেকর্ড  গড়বেন। টমাস মুলারের পর এর আগে দুটি বিশ্বকাপে ৫টি করে গোল আছে, পেরুর তিওফিলো কুবিলাস (১৯৭০, ১৯৭৮)বিশ্বকাপে ও জার্মানিরই মিরোস্লাভ ক্লোসারও (২০০২, ২০০৬) সালের বিশ্বকাপে। 

১৮৪টি গোলে রেকর্ড
বিশ্ব ফুটবলে ছেলেদের রেকর্ড এর পাশাপাশি মেয়েরাও কিন্তু কম রেকর্ড  করছে না।    তাই ফুটবলে জাতীয় দলে মেয়েদের ভিতর  সবচেয়ে বেশি গোলের রেকর্ডটা  এখন যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাবি ওয়ামবাখের।  এবং সেটি এই বছরই  ভেঙে যাওয়ার ক্ষীণ সম্ভাবনা  আছে।কানাডার ক্রিস্টিন সিনক্লেয়ারের গোল যে এই মুহুর্তে ওয়ামবাখের চেয়ে ১৫টি গোল কম। সম্ভাবনাটা ‘ক্ষীণ’ কেন? কারণ ক্রিস্টিনের বয়স যে এখন ৩৪! এর চেয়ে বরং আরেকটা রেকর্ড ছোঁয়া তাঁর জন্য সহজ। এই বছরে আরমাত্র একটা গোল করলেই জাপানের হোমারে সাওয়ার এর  টানা ১৯ বছর ধরে গোল করার রেকর্ড ছুঁয়ে ফেলবেন ক্রিস্টিন।

৬৪ বছর  এর রেকর্ড
ইউরোপীয়দের মধ্যে ফেরেঙ্ক পুসকাস   প্রায় সাড়ে ছয় দশক ধরে জাতীয় দলের জার্সি গায়ে সবচেয়ে বেশি গোলের রেকর্ডটার পাশে  নিজের নামটা জড়িয়ে আছেন।  তাহলে এই রেকর্ডটা কি এবার  হাঙ্গেরিয়ান কিংবদন্তি স্ট্রাইকারের হারানোর পালা?  ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো যে সেটাই আঁচ দিচ্ছেন। কারণ আরমাত্র ৬ গোল দূরে দাঁড়িয়ে আছেন লোভাতুর দৃষ্টিতে ‘গ্যালোপিং মেজরে’র রেকর্ডটা ভাঙার  জন্য। ৩২ বছর বয়সী পর্তুগিজ এই স্ট্রাইকার  যে রেকর্ডটা ভাঙবেন, তা নিয়ে খুব একটা অসম্ভব মনে হচ্ছে না তাঁর অতীতের হিসাবে। পর্তুগালের জার্সিতে গত দুই বছরে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো করেছেন ২৪ ম্যাচে ২৪ গোল! 

৪৩ বছর দিনের রেকর্ড

রাশিয়া বিশ্বকাপেই সম্ভবত অতীত হয়ে যাবে কলম্বিয়ার ফরিদ মনদ্রাগনের রেকর্ডটা। ২০১৪ বিশ্বকাপে ব্রাজিলের বিপক্ষে যখন বদলি হিসেবে নামছিলেন কলম্বিয়ার গোলরক্ষক,ফরিদ মনদ্রাগন  তখন তাঁর বয়স ছিল ৪৩ বছর ৯ দিন। আর সেটা হেয়তো রাশিয়া বিশ্বকাপেই  ভেঙে অতীত হয়ে যাবে। কলম্বিয়ার গোলরক্ষক ফরিদ মনদ্রাগন ব্রাজিল বিশ্বকাপে মাঠে নামার আগে সবচেয়ে বেশি বয়সের অধিকারী ছিল ক্যামেরুন কিংবদন্তি রজার মিলার। যেটা ছিল ২০ বছরের পুরোনো রেকর্ড।এবার রাশিয়া বিশ্বকাপে মিসরের গোলকিপার এসাম এল-হাদারি মাঠে নামলেই রেকর্ডটা হয়ে যাবে তাঁর। উরুগুয়ের সঙ্গে বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচের দিন হাদারির বয়স হবে ৪৫ বছর ৫ মাস।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: