ডোপিং কেলেঙ্কারিতে শীতকালীন অলিম্পিকে নিষিদ্ধ রাশিয়া

2-1.jpg

দক্ষিণ কোরিয়ায় আর মাত্র ৬৫ দিন পর পর্দা উঠবে শীতকালীন অলিম্পিকের। এর মধ্যেই দুঃসংবাদ পেল রাশিয়া। রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় অ্যাথলেটদের ডোপিংয়ের অভিযোগে এবারের শীতকালীন অলিম্পিক থেকে রাশিয়াকে নিষিদ্ধ করেছে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি (আইওসি)। তবে রাশিয়ার যেসব অ্যাথলেট ডোপপাপী নন, তাঁদের অলিম্পিক পতাকাতলে আসরটিতে অংশ নেওয়ার পথ খোলা রেখেছে আইওসি।

পিয়ংইয়ং-এ শীতকালীন অলিম্পিক শুরুর যখন আর দুইমাস বাকি তখনই এলো এমন ঘোষণা। রাশিয়ার সরকারী মদদে খেলোয়াড়দের বলবর্ধক ওষুধ সেবন করানোর অপরাধে ২০১৮ অলিম্পিকে দেশটিকে নিষিদ্ধ করলো আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি আইওসি।

২০১৪ সালে রাশিয়া অলিম্পিকে সরকারি মদদে খেলোয়াড়দেরকে ডোপিং বা বলবর্ধক ওষুধ প্রয়োগের অভিযোগকে কেন্দ্র করে, ১৭ মাস ধরে চলা তদন্তের প্রতিবদেনে যে সব তথ্য ও সুপারিশ উঠে এসেছে তার প্রেক্ষিতেই আইওসির প্রেসিডেন্ট টমাস বাখ এবং তার বোর্ড মঙ্গলবার এই সিদ্ধান্ত ঘোষণা করে।

মঙ্গলবার আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির (আইওসি) বৈঠকে শীতকালীন অলিম্পিকে রাশিয়াকে নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত হয় বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে। আগামী বছরের ৯ থেকে ২৫ ফেব্রুয়ারি দক্ষিণ কোরিয়ায় শীতকালীন অলিম্পিক হওয়ার কথা।

রাশিয়া অংশ নিতে না পারলেও ‘নিষ্পাপ অ্যাথলেটদের’ জন্য অলিম্পিকের দ্বার খোলা থাকবে বলে জানিয়েছে আইওসি; কঠোর নির্দেশ মেনে চলার পাশাপাশি আগে কখনোই ডোপিং করেননি এমন প্রমাণ দিতে পারা অ্যাথলেটদের ‘অলিম্পিক অ্যাথলেট অব রাশিয়া’ নামে অংশগ্রহণের সুযোগ দেওয়ার কথা বলেছে তারা।

২০১৪ সালে সোচিতে হওয়া আগের শীতকালীন অলিম্পিকে পদক তালিকার শীর্ষে ছিল রাশিয়ার অ্যাথলেটরা। এরপরই তাদের বিরুদ্ধে ডোপিংয়ের অভিযোগ ওঠে।

Share this post

PinIt
submit to reddit

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top
%d bloggers like this: