ঢাকায় আসছে রোবট সোফিয়া-bd news world

3.jpg

আগামী ৬ থেকে ৯ ডিসেম্বর রাজধানীর বঙ্গবন্ধু ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স সেন্টারে (বিআইসিসি) পঞ্চমবারের মতো অনুষ্ঠিত হবে তথ্যপ্রযুক্তির বড় প্রদর্শনী ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০১৭’। এবারের এই মহাযজ্ঞে অংশগ্রহণ করবে সৌদির প্রথম নাগরিক রোবট সোফিয়া। রোবটটি ৫ ডিসেম্বর রাতে বাংলাদেশে এসে পৌঁছাবে। এর সঙ্গে একদিনের সফরে ঢাকায় আসছেন এর নির্মাতা ডেভিড হানসন।

গতকাল মঙ্গলবার সচিবালয়ে তথ্য অধিদফতরের সম্মেলন কক্ষে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। এ সময় উপস্থিত ছিলেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। প্রতিমন্ত্রী জানান, সোফিয়াকে নিয়ে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে দুটি সেশন হবে। একটি হবে সাংবাদিকের সঙ্গে, অন্যটি হবে তরুণ অ্যাপ ডেভেলপার, গেম ডেভেলপার, সফটওয়্যার ডেভেলপার এবং উদ্ভাবকদের সঙ্গে। মানুষের ভাব-ভঙ্গি বুঝতে ও হাসি-কান্না, রাগ-অভিমানসহ নিজের অনুভূতি প্রকাশ করতে পারে সোফিয়া। কেউ তার সঙ্গে কথা বললে তাদের বোঝার চেষ্টা করে সে। সামনে মানুষ না থাকলে নিজে নিজে মুভি চালিয়ে দেখে। ভাবতে পারে  জগত, সংসার, সংস্কৃতি ও দর্শন নিয়েও।

মানুষের মতো দেখতে রোবট সোফিয়াকে তৈরি করেছে হংকংভিত্তিক প্রতিষ্ঠান হ্যানসন রোবটিক্স। রোবটটিকে এমনভাবে ডিজাইন করা হয়েছে যাতে সে মানুষের ব্যবহারের সাথে খাপ খাইয়ে নিতে ও শিখতে পারে এবং মানুষের সাথে কাজ করতে পারে। ২০১৫ সালের ১৯ এপ্রিল সোফিয়াকে ‘অ্যাক্টিভেট’ করা হয়। গত ১১ অক্টোবর তাকে প্রকাশ্যে আনা হয়।

রোবট সোফিয়া গত সপ্তাহে খালিজ টাইমসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলে, ‘পরিবার সত্যিই গুরুত্বপূর্ণ একটি ব্যাপার।’ সোফিয়ার মতে, তার যদি একটি কন্যা রোবট থাকে তা হলে নিজ থেকেই কন্যার নাম রাখবে এবং সোফিয়া বিশ্বাস করে যে রোবটদের একটি পরিবার থাকা উচিত।

সৌদি আরবের রিয়াদ নগরীতে রোবটটির প্রদর্শনীতে শত শত প্রতিনিধি রোবটটি দেখে এতটাই মুগ্ধ হন যে সেখানে সাথে সাথেই এটিকে সৌদি নাগরিকত্ব দিয়ে দেওয়া হয়। তবে নারী রোবট সোফিয়াকে সৌদি নাগরিকত্ব দেওয়াতে সেখানে তীব্র বিতর্ক শুরু হয়। এই রোবট একজন সৌদি নারীর চেয়েও বেশি অধিকার ভোগ করছে কিনা তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেন সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞরা।

সুত্রঃ ইত্তেফাক

Share this post

PinIt
submit to reddit

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top
%d bloggers like this: