Home » খেলাধুলা » ক্রিকেট » ঢাকা লিগে ব্যাক-টু-ব্যাক সেঞ্চুরি হাঁকালেন আশরাফুল!
ঢাকা লিগে ব্যাক-টু-ব্যাক সেঞ্চুরি হাঁকালেন আশরাফুল!
ঢাকা লিগে ব্যাক-টু-ব্যাক সেঞ্চুরি হাঁকালেন আশরাফুল!

ঢাকা লিগে ব্যাক-টু-ব্যাক সেঞ্চুরি হাঁকালেন আশরাফুল!

এবারের ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে সেঞ্চুরির আগুন ছড়াচ্ছেন বাংলাদেশের এক সময়ের আশার প্রতীক মোহাম্মাদ আশরাফুল। কিন্তু নিজের দল কলাবাগান এবারের ডিপিএলে তেরকম বলার মতো পারফরম্যান্স করতে না পারলেও ব্যক্তিগত নৈপুণ্যে কিন্তু উজ্জ্বল মোহাম্মদ আশরাফুল।

আর তারই ধারাবাহিকতায় এবারের ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ (ডিপিএল)-এ হাসছে তার ব্যাট। টানা দুই ম্যাচে  ব্যাক টু ব্যাক সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন ৩৩ বছর বয়সী এই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান।

এদিকে আজ বৃহস্পতিবার (২৯ মার্চ) বিকেএসপিতে রেলিগেশন  লিগের প্রথম ম্যাচে আশরাফুলের শতকে ভর করে পাঁচ উইকেট হারিয়ে অগ্রণী ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবকে ২৪৭ রানের টার্গেট দিয়েছে কলাবাগান ক্রীড়া চক্র। ১০৩ রান করে অপরাজিত থাকেন বাংলাদেশ দলের সাবেক অধিনায়ক। ১৩৭ বলের দায়িত্বশীল ইনিংসটিতে ছিল ৮টি চার ও ২টি ছক্কার মার।

কিন্তু কলাবাগানের তিনজন ব্যাটসম্যান ছাড়া আর কোন ব্যাটসম্যানই তেরকম বলার মতো রান করতে পারেনি। শুধু মাত্র আশরাফুলকে যোগ্য সঙ্গ দেয় তাইবুর রহমান, যার ব্যাট থেকে আসে ৮২ রান। অপরদিকে ২৭ রানে অপরাজিত থাকেন রিয়াদুল হুদা। সৌম্য সরকার দু’টি উইকেট নেন। আর একটি করে উইকেট পান শফিউল ইসলাম, আল আমিন হোসেন ও আব্দুর রাজ্জাক।

এদিকে ডিপিএলের এবারের আসরে আজকের সেঞ্চুরির মাধ্যমে এ নিয়ে ১২ ম্যাচে চারটি সেঞ্চুরি করলেন আশরাফুল। ঘরোয়া লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে এটি তার ২৫১তম ম্যাচ ও নবম শতক। এখন পর্যন্ত আর কেউই চারবার তিন অঙ্ক ছুঁতে পারেননি। প্রাইম দোলেশ্বরের লিটন দাসের নামের পাশে রয়েছে শুধু দ্বিতীয় সর্বোচ্চ তিনটি সেঞ্চুরি।

এদিকে আগের ম্যাচেই পঞ্চাশ ওভারের খেলায় ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস উপহার দেন নিষেধাজ্ঞা কাটানোর পর থেকে ন্যাশনাল টিমে ফেরার অপেক্ষায় থাকা আশরাফুল। বিকেএসপিতেই মোহামেডানের বিপক্ষে রাউন্ড রবিন পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচটিতে ১২৭ রানে থামেন তিনি। কিন্তু ম্যাচ জিততে পারেনি ১২ দলের পয়েন্ট টেবিলে একেবারে তলানিতে থাকা কলাবাগান।

শীর্ষ ৬টি টিম খেলছে সুপার লিগ (সুপার সিক্স)। তলানির তিন দলের মধ্যকার রেলিগেশন লিগের সেরা টিম পরবর্তী মৌসুমে খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে। আর তাই সেই লড়াইয়ে নেমেছে আশরাফুলের কলাবাগান। বাকি দুই দল নেমে যাবে প্রথম বিভাগ প্রতিযোগিতায়। আর সুপার সিক্সে উঠতে ব্যর্থ হলেও অপর তিনটি ক্লাব পরের মৌসুমে খেলার টিকিট কাটে। অপরদিকে প্রথম বিভাগ থেকে দু’টি দল ১২ দলের প্রিমিয়ার লিগে উত্তীর্ণ হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: