Home » খেলাধুলা » বাজে পারফরম্যান্সে সোস্যাল মিডিয়ায় কটাক্ষরে মেসির পরিবার!
বাজে পারফরম্যান্সে সোস্যাল মিডিয়ায় কটাক্ষরে মেসির পরিবার!
বাজে পারফরম্যান্সে সোস্যাল মিডিয়ায় কটাক্ষরে মেসির পরিবার!

বাজে পারফরম্যান্সে সোস্যাল মিডিয়ায় কটাক্ষরে মেসির পরিবার!

বার্সেলোনার জন্য নতুন করে দুঃখ রচনা হলো সেমিতে উঠার লড়ায়ে।আর সেই সাথে সমালোচনায় মেসি।এর আগে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ এর কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে ১-৪ গোলে বার্সার কাছে হেরেছিল রোমা। কিন্তু সেই রোমাই বার্ষার বিদায় ঘন্টা বাজিয়ে দিয়েছে। কথাই আছে অঘটন ঘটিতে সময় লাগেনা। আর ঠিক তাই ঘটলো এবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বার্সাকে ৩-০ গোলে হারিয়ে সেমিফাইনালে এখন রোমা । আর ম্যাচ শেষেই ওলিম্পিকো স্টেডিয়ামে দর্শকদের মুখে উচ্চস্বরে শুধু একটাই শব্দ-‘রোমা পেরেছে, রোমা পেরেছে, রোমা পেরেছে’।

বার্সার হারের পরই বিপাকে পরেছে মেসি ও তার পরিবার। তাদেরকে নিয়ে শুরু হয়েছে কটাক্ষ। মাঠে মেসির বাজে পারফরম্যান্সের আঁচ গিয়ে লাগল তার স্ত্রী আনাতোলা রোকুজ্জোর গায়েও। মেসি ভক্তদের ক্ষোপের মুখে পড়লেন তিনিও।

কয়েক দিন আগে মেসির ছোট ছেলে সিরোকে সঙ্গে নিয়ে একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছিলেন তার স্ত্রী। কিন্তু মঙ্গলবারের ম্যাচে হারের পর পরই সেই ছবিতেই মেসির বিরুদ্ধে ভয়ঙ্কর ক্ষোপ উগরে দেন ভক্তরা।

বিভিন্ন মাধ্যমে ভক্তরা লিখেছেন, এটাই মেসির সবচেয়ে খারাপ পারফরম্যান্স। তাই এবার তাঁর অবসর নেওয়ার সময় হয়ে গিয়েছে। আরেকটি কমেন্টে লেখা, মেসি শেষ হয়ে গিয়েছেন। এবার ফুটবল থেকে সরে দাঁড়ান তিনি। তবে শুধু নেটিজেনরাই নন, বার্সা সুপারস্টারকে সমালোচনায় বিদ্ধ করতে ভোলেননি স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলোও।

বার্সেলোনার সংবাদপত্রে মেসিকে উদ্দেশ্য করে খারাপ মন্তব্য করার পাশাপাশি তাকে আক্ষ্যা দিয়েছে ‘ভূত’নামে। এই নামকরণের কারণও কিন্তু বেস খাশাছিলো, রোমার ডিফেন্ডারদের আক্রমনের সামনে মেসিকে যেনো খুঁজেই পাওয়া গেল না। পুরো ম্যাচেই মাঠের কোন অংশেই যেনো খুজে পাওয়া গেলো না তাকে।এযেনো এক অদৃশ্য খেলায় হারিয়েছে পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী।তবে পুরো খেলায় মাত্র একবারই গোলমুখী একটা শট নিয়েছিলেন তিনি।আর তাও ধরা পরে গিয়ে রোমা গোলকিপারের হাতে।

বিভিন্ন সংবাদপত্রে লেখা হয়েছে, এই হারের পর আতঙ্কে রয়েছেন মেসি। তাঁর ভয়, তাঁকে টপকে ষষ্ঠ ব্যালন ডি’অর হয়তো ঝুলিতে পুরবেন চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোই। মেসি সমালোচিত হলেও এডি জেকোর প্রশংসা করেছে মিডিয়া। বার্সার বিরুদ্ধে রোমার প্রত্যাবর্তনকেও অপার্থিব বলে ব্যাখ্যা করা হয়েছে।

এই নিয়ে টানা তিনবার শেষ আটে উঠে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে ছিটকে গেল বার্সেলোনা। ম্যাচ শেষে মিডফিল্ডার সের্জিও বুস্কেটস তো স্বীকার করেই নিলেন, রোমার আক্রমণাত্মক ফুটবলের কাছে হার মেনেছেন তাঁরা।

তবে এবার মেসি ভক্তরা খুবই আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে তার পারফর্ম নিয়ে। অনেকেই ভাবছে মেসি এবার আর বিশ্বকাপে জ্বলে উঠতে পারবেনা। তার দিন অনেক আগেই শেষ হয়েছে।বিশ্বকাপ নিয়ে চিন্তিত ভক্তরা।

এদিকে আন্দ্রে ইনিয়েস্তা বলেন, “খুব যন্ত্রণাদায়ক ঘটনা। কেউ আশা করেনি এভাবে বার্সেলোনা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে ছিটকে যাবে। সত্যি বলতে কী আমরা কখনওই ম্যাচটাকে নিজেদের নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারিনি।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: